ব্লগিং সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা

/ / ব্লগিং সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা
basic knowledge about blogging

আসসালামু আলাইকুম, আমরা হয়তো অনেকেই ব্লগিং বা ব্লগ শব্দটি শুনেছি। অনেকেই বিষয়টি জানেন, হয়তো আরো বিস্তারিত জানতে আগ্রহী আছেন। এখানে আমি লিখতে যাচ্ছি ব্লগ কী, ব্লগিং করতে কি কি প্রয়োজন, কিভাবে ব্লগিং শুরু করবেন, কিভাবে ব্লগ থেকে উপার্জন করতে পারবেন ইত্যাদি

ব্লগ কী

প্রথমেই জানি ব্লগ কি। ব্লগ হচ্ছে অনলাইন নির্ভর ও ওয়েবসাইট ভিত্তিক একটি প্রকাশনা যেখানে আপনি লেখা, ছবি, তথ্য, ভিডিও এসব প্রকাশ করতে পারেন।

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করতে পছন্দ করেন। কিন্তু সচরাচর বই বা ম্যাগাজিনে আপনার লেখা প্রকাশে অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়। অথচ, অনলাইনে আপনি চাইলেই এখনি একটি ব্লগ লিখে আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারছেন।

সবচেয়ে খুশির ব্যপার হলো, ব্লগের মাধ্যমে আপনি লাইফটাইম খুব ভাল পরিমাণ টাকাও উপার্জন করতে পারবেন। আপনি যেই মুহুর্তে ঘুমাচ্ছেন, সেই মুহুর্তে ও আপনার ইনকাম চলতে থাকবে। আপনি এই পৃথিবিতে না থাকলেও আপনার ব্লগের উপার্জন বন্ধ হবেনা। হয়তো বিশ্বাস হচ্ছেনা, আসুন বিস্তারিত জানি।

ব্লগিং কেন করবেন

ধরুন, আপনি কোন বিষয়ে কিছু লিখে গুগলে সার্চ দিলেন তাহলে ঐ বিষয়ের উপর অনেকগুলো ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিস্ট পাবেন। এই সব সাইটে গিয়ে আপনি অনেক কিছু জানতে পারবেন এবং উপকৃত হবেন।

অনুরূপভাবে, আপনি যখন কোন বিষয়ে ভাল জানেন এবং সেগুলো নিয়ে  নিজের ব্লগ অথবা অন্য কোন ব্লগ সাইটে পোস্ট করেন তাহলে অন্যরা ঐ টপিকে সার্চ করার সময় আপনার লেখা পাবে এবং তারাও জানতে পারবে। এতে করে তারাও উপকৃত হতে পারবে।

কেন আপনি ব্লগিং শুরু করতে পারেন

  • সাম্প্রতিক, এবং ঘটে যাওয়া বিভিন্ন বিষয়ে নিজের চিন্তা-চেতনা ও মতামত প্রকাশ করতে পারবেন।
  • আপনি কোন কিছু শিখলেন তা অন্যকে শিখতে সাহায্য করতে পারেন
  • আপনি ধীরে ধীরে একজন ভাল লেখক হতে পারবেন।
  • ব্লগিংয়ের মাধ্যমে আপনি নিজেকে আত্মবিশ্বাসী, অনুপ্রাণিত করা ও  আপনার পাঠক বা ভিজিটরদের মধ্যে প্রভাব ফেলতে পারবেন।
  • সবশেষে ব্লগিং মাধ্যমে অ্যাডসেন্স, অ্যাফিলিয়েশন ও স্পনসরশিপ থেকে লাইফটাইম ভাল আয় করা যায়।
  • ব্লগিংকে আপনি ফুলটাইম ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারেন।

পড়ুন- ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায়

ব্লগিং করতে যা যা প্রয়োজন

সহজলভ্যতা ও অর্থ উপার্জন ছাড়াও আরো কিছু কারণে ব্লগিং দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সবার কাছে। ঘরে বসেই ব্লগ থেকে ভাল ও সম্মানজনক জীবিকা উপার্জন করা সম্ভব।

কিন্তু সবাই কি ব্লগিং করতে পারবে? আমার পক্ষ থেকে এই প্রশ্নের উত্তর না। সবার দ্বারা এটা সম্ভব নয়। এর মানে এই নয় যে আপনি ও পারবেন না। আপনি ও ব্লগিং করে অনেকের মত সফল হতে পারবেন।

যেকোন একটি বিষয়ে ভাল দক্ষতা বা জ্ঞান

যেকোন একটি বিষয়ে ভাল দক্ষতা, অভিজ্ঞতা বা জ্ঞান থাকলেই শুধুমাত্র আপনি ব্লগিং করার যোগ্যতা রাখেন। আপনার যোগ্যতা থাকা সত্বেও যদি আপনি ব্লগিং না করে থাকেন, আমি বলব আপনি বিশাল একটি সম্ভাবনাকে নষ্ট করছেন।

ধরুন আপনি ভাল রান্না করতে জানেন, পোশাক ডিজাইন বা তৈরি করতে জানেন, হতে পারে বিভিন্ন জায়গা বেড়ানোর অভিজ্ঞতা আছে, বা কম্পিউটার, প্রযুক্তি, পড়াশোনা যেকোন বিষয়ে আপনার ভাল জ্ঞান থাকলেই আপনি তা নিয়ে লেখালেখি করতে পারেন।

আগ্রহ ও আবেগ

লেখালেখি করতে ভালবাসা, মন থেকে এই জন্য আগ্রহ বা আবেগ না থাকলে আপনি  নিশ্চিত বেশিদুর যেতে পারবেন না।

অনেকেই এমন আছেন, ব্লগিং থেকে ভাল আয় করা যায় শুনে কিছুদিন লেখালেখি করলো, কিন্তু দ্রুত ইনকাম না আসার কারণে এটা বাদ দিয়ে অন্য কাজে যুক্ত হয়ে পড়ল।

আমি আমার নিজের ঘটনা আপনাদের কাছে শেয়ার করি। ২০০৮ সাল থেকে যখন আমি ইন্টারনেট ব্যবহারে আসি। আমি অনলাইন থেকে আয়ের জন্য ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট শিখতে শুরু করি। ২০১২ সালে এসব নিয়ে লেখালেখি করার জন্য একটা ব্লগ করি যার উদ্দেশ্য ছিল গুগল এ্যাডসেন্স থেকে আয় করা। এভাবে ২০১৮ সাল পর পর আরো ২ টা ব্লগ করি কিন্তু এ্যডসেন্স অনুমোদন পাইনি।

২০১৮ এর শুরুতে bdclass.com নামে আরো একটি শিক্ষামূলক সাইট করি আর প্রায় 2 বছর পর আমি এ্যাডসেন্স এ্যাপ্রুভাল পাই। প্রায় ৮ বছর চেষ্টার পর আমি আমার ব্লগের সফলতা পাই। এডসেন্স থেকে প্রথম ১০০ ডলার পেতে আরো অপেক্ষা করতে হয় প্রায় ৪ মাস কারন তখনও সাইটটি খুব জনপ্রিয় ছিলনা। এটি সম্ভব হয়েছে ব্লগিং এর জন্য আমার আগ্রহ ছিল এবং ৮ বছর আমি লেগে থাকার কারণে।

এখন পর্যন্ত আয় না হলেও আমি লেখালেখি বন্ধ করতাম না। আমি চালিয়ে যেতাম।

যদি আপনার কাজকে আপনি ভালবাসতে না পারেন, আপনার জন্য সেই কাজ নয়।

কম্পিউটার ও ইন্টারনেট

ব্লগিং করতে আপনার একটি মোটামুটি কনফিগারেশনের সাধারণ ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার প্রয়োজন হবে। মোবাইল বা ট্যাব ডিভাইস থেকে আপনি সাচ্ছন্দে ব্লগিং করতে পারবেন না।

আপনার খুব দ্রুতগতির ইন্টারনেট প্রয়োজন নেই। ব্রডব্যান্ড থাকলে ভাল, না থাকলে মোবাইল ইন্টারনেট দিয়েও ভালভাবে কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন।

কম্পিউটারে দক্ষতা

আপনাকে কম্পিউটারের মৌলিক কিছু প্রোগ্রামের ব্যবহার ভালভাবে জানতে হবে। আপনার যেসব প্রোগ্রামগুলো জানা প্রয়োজনঃ

  • ইন্টারনেট ব্রাউজার- ইন্টারনেটে প্রবেশ করা, বিভিন্ন তথ্য খুজে বের করা, ব্লগ আপডেট করা
  • বাংলা বা ইংরেজিতে লেখা/ টাইপিং/ ভয়েস টাইপিং– আপনি যে ভাষায় ব্লগ লিখতে চান
  • এডোবি ফটোশপ ও এডোবি ইলাষ্ট্রেটর– ছবি এডিট করা বা ব্লগের জন্য ব্যানার, লোগো বা ডিজাইন বানানো।

ব্লগ ওয়েবসাইট

উপরের সবগুলো যোগ্যতা আপনার মধ্যে থাকলে, ব্লগিংকে আপনার ফুলটাইম ক্যারিয়ার বা পার্টটাইম ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারেন। সবশেষে আপনার প্রয়োজন হবে আপনার লেখা প্রকাশের জন্য একটি ব্লগ ওয়েবসাইট।

আমার মতে ব্লগিং একটি ব্যবসায়। অন্য সকল ব্যবসায়ে অনেক পরিমাণ মূলধনের প্রয়োজন থাকলেও, ব্লগিংএ আপনার মূলধন হলো, আপনার জ্ঞান, দক্ষতা আর শ্রম। শুধুমাত্র আপনার ব্লগ ওয়েবসাইটটি তৈরি জন্য আপনার খুবই সামান্য টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। ১৫০০ থেকে ৩০০০ টাকার মধ্যে আপনি একটি ভাল ওয়েবসাইট তৈরি করিয়ে নিতে পারবেন।

যদি তাও আপনার অসুবিধা হয়, আপনি Google এর জনপ্রিয় ফ্রি ব্লগিং সেবা blogger.com থেকে তৎক্ষনাৎ একটি ব্লগ বানাতে পারবেন। আমি এখানে ফ্রি ও পেইড ২ ধরণের ব্লগ নিয়েই বিস্তারিত বলছি।

বিনামূল্যের ব্লগ- blogger.com

যদি এখনি আপনার টাকা ব্যয় করার সামর্থ্য না থাকে, আপনি গুগলের খুবই জনপ্রিয় ব্লগিং সেবা blogger.com থেকে আপনার জন্য একটি ব্লগ তৈরি করতে পারবেন।

এখানে আপনাকে, কোন মাসিক বা বাৎসরিক ফি দিতে হবেনা। এটি এখন পর্যন্ত সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

তবে আপনাকে আপনার ব্লগের টপিক অনুসারে একটি ডোমেইন নেইম কিনতে হবে। জনপ্রিয় ডোমেইন নেইম গুলো হচ্ছে, .COM, .NET, .ORG ইত্যাদি। আপনি এখন আমার যেই ব্লগটি পড়ছেন, এটা আমার নাম দিয়ে করা (abdulahwal.com)। এরকম একটি ডোমেইন এর দাম ৮০০ থেকে ১২০০ টাকা। .COM সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং এর দাম ৮০০ থেতে ৯০০ টাকা হয়ে থাকে। তবে অফার মূল্যে আপনি আরো কমে ও পেতে পারেন।

ওয়ার্ডপ্রেস- WordPress.org

ওয়ার্ডপ্রেস হলো সারা বিশ্বের সবচাইতে সহজ, বিনামূল্যের একটি ব্লগিং ও কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে একটি ব্লগ সাইট তৈরি করতে, ওয়েব হোস্টিং বা ওয়েব সার্ভার প্রয়োজন হয়।

এখানে আপনার ব্যয় হবে মোট ৩ টিঃ

  • ডোমেইন- ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা
  • হোস্টিং- ১০০০ থেকে ১৫০০ টাকা (শেয়ার্ড হোস্টিং- নুন্যতম খরচ)
  • এক্সপার্ট- ২০০০ টাকা।

যদি আপনার শিখে কিছু করার ধৈর্য্য থাকে, আপনি নিজেই নুন্যতম খরচে (১৫০০-২০০০ টাকা) প্রফেশনাল একটি ব্লগ তৈরি করতে পারবেন। কিভাবে নিজেই একটি প্রফেশনাল ব্লগ তৈরি করবেন তা আমি শিখিয়ে দেব।

সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন- এসইও

ধরুন আপনি আপনার ব্লগিং যাত্রা শুরু করলেন। অনেক ভাল ভাল লেখালেখি ও করলেন কিন্তু আপনার ব্লগে ভিজিটর/ রিডার কিভাবে আসবে।

মনে করেন আপনি কোন ইনফরমেশন জানতে চাইছেন, আপনি কি করেন? গুগলে সার্চ দেন। সার্চ দেয়ার পর পেইজে কতগুলো ওয়েবসাইটের লিস্ট আসে যেখানে আপনার সার্চ দেয়া ইনফরমেশন আছে।

আপনার ভিজিটর বা পাঠক ও আপনার ব্লগ এভাবে গুগল বা অন্য সার্চ ইন্জিনে সার্চ করেই আসবে।  এজন্য, আপনার লেখা যেন কোন ভিজিটর সার্চ করলে, লিস্টের উপরের দিকে বা ১ নম্বরে থাকে সেই জন্য আপনাকে লেখালেখিতে কিছু কৌশল প্রয়োগ করতে হবে। গুগল সার্চের প্রথমদিকে আপনার ব্লগকে নিয়ে আসতে হলে যা যা করা প্রয়োজন এসব কাজকেই বলে সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন (Search Engine Optimization- SEO)  বা এসইও।

সবকিছু এখনি আপনার প্রয়োজন হবেনা। শুধুমাত্র কোন বিষয়ে দক্ষতা ও জ্ঞান থাকলে এবং এই জন্য আপনার যথেষ্ট আগ্রহ থাকলে এখনি শুরু করতে পারেন। বাকি সব কিছু যোগাড় করা বা শিখে করা খুব কঠিন কিছুনা।

পড়ুন- কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো

এটি আপনি এখনি শিখতে হবেনা, লেখালেখি করতে করতে শিখতে পারবেন। আর ব্লগিং, এসইও, এফিলিয়েট মার্কেটিং ও ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়েই আপনাকে সহযোগিতা করতে আছে আমার এই ব্লগ।

আবার ও নতুন কোন বিষয় নিয়ে খুব তারাতারি হাজির হব। নতুন ব্লগপোস্ট পেতে সাইন আপ করে রাখুন

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।